বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৩:৪৫ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর :
বিএসএমএমইউ ৬০০ নার্স নিয়োগ দেবে করোনায় দেশে ৩২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২,১৩১ আ.লীগ বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে: তথ্যমন্ত্রী সরকারের দুঃশাসনের সীমা ছাড়িয়ে গেছে: রিজভী রেমিটেন্সের ইতিবাচক ধারা অব্যাহত খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়াতে পরিবারের আবেদন চিরনিদ্রায় শায়িত রাহাত খান সিনহা হত্যা: পুলিশের মামলার তিন সাক্ষী চারদিনের রিমান্ডে এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে অনিশ্চয়তা কাটছে না ‘১লা সেপ্টেম্বর থেকে আগের ভাড়ায় চলবে গণপরিবহণ’ সিলেটে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫ পুতিনের মেয়ের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি করেছে রুশ ভ্যাকসিন ভারতে করোনা আক্রান্ত ছাড়াল ৩৪ লাখ পুলওয়ামায় লস্কর-ই-তৈয়বার তিন জঙ্গি নিহত ঘুর্ণিঝড় লরায় যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ জনে ‘পুতিন একটু চা খাও’ বিশ্বে করোনায় সুস্থ হয়েছেন এক কোটি ৭২ লাখের বেশি করোনায় সবচেয়ে বিপর্যয়ের মুখে যুক্তরাষ্ট্র ভারতে ৮৭ হাজারের বেশি স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত ইউরোপে আবারও বাড়ছে করোনা সংক্রমণ
বিজ্ঞপ্তি :
চলছে পরীক্ষামুলক সংবাদ প্রচার

ইউরোপে আবারও বাড়ছে করোনা সংক্রমণ

রিপোর্টারের নাম / ১৭৪ জন দেখেছেন
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৩:৪৫ অপরাহ্ন

ফ্রান্সের প্যারিসের রাস্তায় সবার মুখেই মাস্ক। উদ্দেশ্য একটাই ভাইরাস প্রতিরোধ। নতুন করে ফ্রান্সে করোনার সংক্রমণ বাড়ায় শুক্রবার (২৮ আগস্ট) থেকে রাজধানীতে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছে ফরাসি কর্তৃপক্ষ।

দেশটিতে একদিনে ৭ হাজার ৩শ’র বেশি মানুষের শরীরে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। যা গেল মার্চের পর ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ।

ভাইরাসের কারণে দেশজুড়ে পুনরায় লকডাউন এড়াতে বিকল্প ভাবছে ম্যাক্রোঁ সরকার। যে অঞ্চলে সংক্রমণ বাড়ছে আপাতত সেখানে লকডাউন দেয়া হচ্ছে। তবে, ভাইরাসটি নিয়ন্ত্রণের বাইরে গেলে আবারও কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানান প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

বলেন, সবার আগে আমাদের নাগরিকদের জীবনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। প্রয়োজনীয় সবকিছুর প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে। প্রথম ধাপে যে ভুল হয়েছে তার যেন পুনরাবৃত্তি না হয় সেটাই প্রাধান্য পাবে। মাস্ক পরা সত্যিই অস্বস্তিকর। তারপরেও ভাইরাসটি প্রতিরোধে এটা আমাদের মানতেই হবে।

ফ্রান্স যখন আবারও লকডাউনের পথে হাঁটছে তখন আগামী সপ্তাহ থেকে কর্মস্থলে ফিরতে নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ।

ব্রিটিশ যোগাযোগমন্ত্রী গ্রান্ট শাপস বলেন, ভাইরাসের কারণে বাড়ি থেকেই সবাই নিজেদের কাজ করছেন। তবে, কিছু কিছু কাজ আছে যেগুলো অফিস ছাড়া করা সম্ভব নয়। এখন আবারও অফিসে কাজে ফেরার মতো অবস্থা তৈরি হয়েছে। আপনারা নিশ্চিন্তে অফিস করতে পারেন।

এদিকে, একদিনে যুক্তরাষ্ট্রে আবারও ৫০ হাজার মানুষের দেহে ভাইরাসটির অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। মারা গেছেন এক হাজারের বেশি মানুষ। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক লাখ ৮৫ হাজারের বেশি। অচিরেই এই সংখ্যা দুই লাখে পৌঁছাবে বলে জানায় দেশটির রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র।

করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে লাতিন আমেরিকান দেশগুলোতেও। ভাইরাসটি প্রতিরোধে কিউবায় জারি করা হয়েছে কারফিউ।

এদিকে, গেল জানুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত প্রায় ৬ হাজার মানুষকে করোনা সম্পর্কিত নানা অভিযোগে গ্রেফতার করেছে চীনা কর্তৃপক্ষ। স্বাস্থ্যকর্মীকে হত্যা, মারামারি, নকল চিকিৎসা সরঞ্জাম ও সুরক্ষা সামগ্রী বিক্রি, করোনা রোগীর জন্য অর্থ সংগ্রহ করে আত্মসাতের ঘটনায় তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানায় চীনা গণমাধ্যম।

এছাড়া, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের নেয়া পদক্ষেপের বিরোধিতা করে বিক্ষোভ হচ্ছে জার্মানিতে। শনিবার সকাল থেকেই রাজধানী বার্লিনের রাস্তায় অবস্থান নেন হাজার হাজার মানুষ। এসময় জাতীয় পতাকা হাতে করোনা মোকাবিলায় সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের সমালোচান করেন বিক্ষোভকারীরা। সামাজিক দুরত্ব না মেনেই বিক্ষোভ করেন তারা। বৃহস্পতিবার ভাইরাস প্রতিরোধে গণজমায়েত নিষিদ্ধসহ নানা নিষেধাজ্ঞা দেয় সরকার। এরই বিরোধিতা করে বিক্ষোভের ডাক দেন সাধারণ মানুষ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সংক্রান্ত খবর