রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০৫:৫০ অপরাহ্ন
সর্বশেষ খবর :
বিএসএমএমইউ ৬০০ নার্স নিয়োগ দেবে করোনায় দেশে ৩২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২,১৩১ আ.লীগ বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে: তথ্যমন্ত্রী সরকারের দুঃশাসনের সীমা ছাড়িয়ে গেছে: রিজভী রেমিটেন্সের ইতিবাচক ধারা অব্যাহত খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়াতে পরিবারের আবেদন চিরনিদ্রায় শায়িত রাহাত খান সিনহা হত্যা: পুলিশের মামলার তিন সাক্ষী চারদিনের রিমান্ডে এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে অনিশ্চয়তা কাটছে না ‘১লা সেপ্টেম্বর থেকে আগের ভাড়ায় চলবে গণপরিবহণ’ সিলেটে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫ পুতিনের মেয়ের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি করেছে রুশ ভ্যাকসিন ভারতে করোনা আক্রান্ত ছাড়াল ৩৪ লাখ পুলওয়ামায় লস্কর-ই-তৈয়বার তিন জঙ্গি নিহত ঘুর্ণিঝড় লরায় যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ জনে ‘পুতিন একটু চা খাও’ বিশ্বে করোনায় সুস্থ হয়েছেন এক কোটি ৭২ লাখের বেশি করোনায় সবচেয়ে বিপর্যয়ের মুখে যুক্তরাষ্ট্র ভারতে ৮৭ হাজারের বেশি স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত ইউরোপে আবারও বাড়ছে করোনা সংক্রমণ
বিজ্ঞপ্তি :
চলছে পরীক্ষামুলক সংবাদ প্রচার

আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করতেই গ্রেনেড হামলা করে জঙ্গিরা

রিপোর্টারের নাম / ১৫৭ জন দেখেছেন
প্রকাশ : রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০৫:৫০ অপরাহ্ন

দু’হাজার একে বিএনপি-জামাত জোট ক্ষমতায় আসার পরই তাদের পৃষ্ঠপোষকতায় একটি চক্র অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসীদের নিঃশেষ করতে একের পর এক সন্ত্রাসী হামলা চালাতে থাকে।

এরই ধারাবাহিকতায় দুহাজার চারের একুশে আগস্ট আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করতে রাষ্ট্রীয় মদদে গ্রেনেড হামলা করে জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদ। চৌদ্দ বছর পর, গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে, দণ্ডিত হয়েছে চক্রটি।

ষোলো বছর আগে, একুশে আগস্টের বিকেল ছিল রক্তাক্ত বিভীষিকাময়। বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী শান্তি সমাবেশে, যুদ্ধক্ষেত্রে ব্যবহৃত আর্জেস গ্রেনেড দিয়ে হামলা করে হরকাতুল জিহাদের জঙ্গিরা। শেখ হাসিনা প্রাণে বেঁচে গেলেও নিহত হন আইভী রহমানসহ চব্বিশ নেতা-কর্মী।

গ্রেনেড হামলা মামলার প্রধান তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক আবদুল কাহার আকন্দ জানান, অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী শক্তিগুলোকে আদর্শিক শত্রু মনে করে হরকাতুল জিহাদ। এ কারণেই একুশে আগস্ট শেখ হাসিনাকে হত্যার পাশাপাশি আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূণ্য করতে গ্রেনেড হামলা করে জঙ্গি সংগঠনটি।

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা প্রধান তদন্ত কর্মকর্তা আবদুল কাহার আকন্দ,’ধর্ম নিরপেক্ষ রাজনীতি ও অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি এটাই হলো মূল টার্গেট। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় আসে তখন তাদের ধারণা হলো, শেখ হাসিনা যদি ক্ষমতায় থাকে বা আওয়ামী লীগ যদি ক্ষমতায় থাকে, তবে তাদের এ কার্যক্রম এ দেশে চালানো সম্ভব না। তখন থেকেই তারা আওয়ামী লীগ বা শেখ হাসিনাকে শেষ করে দেয়ার চেষ্টা চালাতে থাকে।’

হামলার চৌদ্দ বছর পর বিচাররিক আদালতের রায়ের মাধ্যমে উন্মোচিত হয় ষড়যন্ত্রকারী, সহায়তাকারী ও বাস্তবায়নকারীদের নীল নকশা। গ্রেনেড হামলা চালানো হয়েছিল রাষ্ট্রীয় মদদে। রায়ের পর্যবেক্ষণে আদালত আরও বলেন- রাজনীতি মানেই কি বিরোধী দলের ওপর পৈশাচিক আক্রমণ? বিরোধ থাকলেই কি বিরোধী দলকে নেতৃত্বশুন্য করার প্রয়াস চালাতে হবে? বিরোধীদলীয় নেতাদের হত্যা করে ক্ষমতাসীনদের রাজনৈতিক ফায়দা অর্জন মোটেই গণতান্ত্রিক চিন্তার বহিঃপ্রকাশ নয়।

রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান কৌঁসুলি সৈয়দ রেজাউর রহমান জানান, আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করতে জঙ্গিদের সঙ্গে হাত মেলান বিএনপি-জামায়াতের এমপি-মন্ত্রী-রাজনীতিক থেকে সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তারাও। একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার প্রধান কৌঁসুলি সৈয়দ রেজাউর রহমান বলেন, ‘আব্দুস সালাম পিন্টু, লুৎফুজ্জামান বাবর, কায়কোবাদ, হারিস চৌধূরী। এদের সঙ্গে আরও অনেক জঙ্গী। একটা পর্যায়ে তাদেরকে অর্থিক এবং প্রশাসনিক সাহায্য সহযোগীতার আশ্বাস তারকে জিয়া দিয়েছে।’

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা এখন উচ্চ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এই মামলার চূড়ান্ত নিষ্পত্তির মাধ্যমে বাংলাদেশবিরোধী শক্তি আরও কোনঠাসা হবে বলে প্রত্যাশা বিচার সংশ্লিষ্টদের।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সংক্রান্ত খবর